প্রধান সংবাদ

‘মধ্যপ্রাচ্য থেকে দেশে ফিরছেন ২৯ হাজার প্রবাসী’

স্টাফ রিপোর্টার:
মধ্যপ্রাচ্য থেকে আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে প্রায় ২৯ হাজার বাংলাদেশি কর্মী দেশে ফিরছেন। মূলত করোনাভাইরাস ইস্যুতে কারাগার থেকে সদ্য মুক্তি পাওয়া, কর্মহীন এবং দীর্ঘ সময় ধরে অবৈধভাবে মধ্যপ্রাচ্যে দেশগুলোতে থাকা ব্যক্তিরা এই তালিকায় রয়েছেন।

বুধবার এ বিষয়ে পঞ্চম আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক শেষ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের ধারণা মতে, আগামী কয়েক সপ্তাহে প্রায় ২৮ হাজার ৮৪৯ জন প্রবাসী দেশে আসতে পারেন। আমরা তাদের জন্য কী ব্যবস্থা করছি, তা নিয়ে আলাপ করেছি।’

মালদ্বীপ থেকে বৃহস্পতিবার আরও চারশ বাংলাদেশি ফিরছেন জানিয়ে মোমেন বলেন, ‘ইতোমধ্যে আমরা আরও কিছু নিয়ে এসেছি। প্রবাসীদের যাতে অসুবিধা না হয়, সেজন্য আমরা এক টনের মতো খাবার-দাবার দিয়েছি। দেশটির প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, ওখান থেকে আমাদের ১৫ শ লোক আসবে।’

সৌদি আরব থেকে মোট কত শ্রমিককে ফেরাতে হবে, সেই হিসাব দেশটি ‘পুরোপুরি’ দেয়নি মন্তব্য করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘তাদের কনটেক্সটে ৪ হাজার ২৬২ জন আসার সম্ভাবনা আছে।’

তিনি জানান, ‘ওমান থেকেও এক হাজার বাংলাদেশিকে ফিরতে হবে। ইরাকেও অনেক শ্রমিক চাকরি হারিয়েছেন।’

এর বাইরে সংযুক্ত আরব আমিরাত, জর্ডান, লেবানন প্রভৃতি দেশ থেকে প্রবাসী অনেক বাংলাদেশিকে ফিরতে হচ্ছে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ ২০০ কোটি টাকার তহবিল গড়ে তুলেছে। প্রবাসীরা দেশে ফিরলে তাঁদের পাঁচ থেকে সাত লাখ টাকা ঋণ দেওয়া হবে।’

বিদেশফেরতদের কোয়ারেন্টিন প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘এখন সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি ব্যক্তির প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের ব্যবস্থা আছে। কেউ যদি বাংলাদেশে আসার আগে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকেন বা ‘করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট’ নিয়ে আসেন তাহলে নিজের বাড়িতে কোয়ারেন্টিনের সুযোগ দেওয়া হবে। নয়তো তাঁদের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।’

চিত্রদেশ//এস//

আরও

Leave a Reply

Back to top button