সাহিত্য

কবি মেহেবুব হকের কবিতা ‘তোমাকে ভীষণ মনে পড়ে’

তোমাকে ভীষণ মনে পড়ে !
আজও ভুলতে পারিনি
তোমার সেই মায়াবী মুখখানি
কী নিস্পাপ করুন চাহনি
যেন ঈশ্বর তাঁর হৃদয়ের সবটুকু
মুগ্ধতা দিয়ে গড়েছেন তোমাকে আপন হাতে।
তুমি হাঁটছিলে পার্কের রাস্তা ধরে,
চারিদিকে ছিল বাহারি ফুলের অপরূপ দৃশ্য
স্বর্গীয় ভালোবাসার মাতাল হাওয়া
সেদিন আমাকে মোহিত করেছিল।
একবার তুমি তাকালে পিছন ফিরে
চোখে চোখ পড়তেই আমি যেন
হারিয়ে গেলাম কোন এক রোমান্টিক দুনিয়ায় ।
বুঝিনি কী হয়েছিল আমার তবুও
নিজেকে কিছুটা সামলে নিয়ে
হাঁটছিলাম আমি তোমার পিছু পিছু।
অসংখ্য মানুষের ভিড়ে
আমি ক্ষণিকের তরে হারিয়েছিলাম হিতাহিত জ্ঞান,
ঈশ্বর এ কী খেলা খেললে তুমি
কেনই বা আমার দিল হয়েছিল এতটা বেইচান।
কী ছিল সেই টান!
মুহূর্তেই তোমাকে হারিয়ে
হৃদয়টা আমার ভেঙে হয়েছিল খান খান।
তোমার চোখে নেশা ছিল,
মিষ্টি প্রেমের গন্ধ ছিল,
যৌবনের কিছুটা উন্মাদনা ছিল
তবুও স্থিরতা ছিল বেশ,
মুগ্ধতা ছিল অবিশ্বাস্য!
সেই অম্লান স্মৃতি আজও আমি
বয়ে নিয়ে বেড়ায় হৃদয়ের গহীনে,
যতই তুমি থাকো না দূরে
তবু উন্মাদ আমি,
উচ্ছল আমি
চঞ্চল আমি
চাতক পাখির ন্যায় চেয়ে থাকা পথিক আমি ,
আজও খুঁজি তোমায় সারা দুনিয়ার মাঝে,
কারণ তোমাকে ভীষণ মনে পড়ে, শুধুই মনে পড়ে ।

তাং-১৭/০৭/১৯ ইং, ঢাকা।

কবি- মেহেবুব হক

আরও

Leave a Reply

Check Also

Close
Back to top button