খোজঁ-খবর

শুরু হয়েছে ‘কনজুমার্স আইডল’ প্রতিযোগিতা

স্টাফ রিপোর্টার:
নকল-ভেজালের দিন শেষ, সচেতন ভোক্তায় সমৃদ্ধ দেশ- প্রতিপাদ্যে ‘তোফায়েল-তাইফা কনজুমার্স আইডল গোল্ডকাপ প্রতিযোগিতা’ শুরু হয়েছে। এখানে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণে সচেতনতা সৃষ্টিমূলক প্রচারণার জন্য যে কেউ গল্প, কবিতা, নাটক, রচনা, ভিডিও, অডিও পাঠাতে পারবেন।

প্রতিযোগিতায় সেরা তিন লেখক-পরামর্শক পাবেন গোল্ড, ব্রোঞ্জ ও সিলভার মেডেল। এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সিসমার্ক লিমিটেড এবং হোমস্ট্রিট বিল্ডার্স।

আয়োজকরা জানান, নকল-ভেজাল পণ্য প্রতিরোধে, প্রচারণা, সচেতনতা সৃষ্টির উদ্দেশ্যে উদ্ভাবনী আইডিয়া প্রতিযোগিতা ঘোষণা করা হয়েছে। প্রতিযোগিতায় স্কুল, কলেজ, মাদরাসা, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বা যে কেউ সুচিন্তিত আইডিয়া বা পরামর্শ লিখে হতে পারেন ‘কনজুমার্স আইডল’। সেই সঙ্গে জিতে নিতে পারেন ‘কনজুমার্স আইডল অ্যাওয়ার্ড’।

লেখার বিষয়

১. সচেতনতা সৃষ্টিমূলক প্রচারণার জন্য গল্প, কবিতা, নাটক, রচনা বা অনুরূপ।

২. ডিজিটাল প্রচারণায় ব্যবহারযোগ্য যেকোনো কনটেন্ট আইডিয়া, ভিডিও, অডিও বা তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক আইডিয়া বা অনুরূপ।

৩. সচেতনতা সৃষ্টিমূলক প্রচারণার জন্য ব্যবহারযোগ্য যেকোনো উদ্ভাবনী আইডিয়া।

নিয়মাবলী

১. লেখা এমএস ওয়ার্ডে বাংলায় (Sutonny, size 14) হবে হবে।
২. সর্বোচ্চ ২ হাজার শব্দ হতে হবে। তবে গল্প ও নাটকের জন্য শব্দ সংখ্যা বেশি হতে পারে।
৩. লেখা শুধুমাত্র ই-মেইলে ([email protected], [email protected]) পাঠানো যাবে।
৪. লেখার সঙ্গে লেখকের বর্তমান ও স্থায়ী পূর্ণ ঠিকানা, ফোন নম্বর/ই-মেইল ও পাসপোর্ট সাইজের ছবি সংযুক্ত করতে হবে।
৫. লেখা পাঠানোর শেষ তারিখ আগামী ৩১ জানুয়ারি।
৬. ফলাফল ঘোষণা না হওয়া পর্যন্ত একই লেখা অন্য কোথাও পাঠানো বা প্রকাশ করা যাবে না।
৭. ফলাফল ঘোষণায় নির্বাচিত না হলে লেখক তার লেখা যেকোনো কাজে ব্যবহার করতে পারবেন।
৮. নির্বাচিতদের লেখার স্বত্ব ‘সিসমার্ক লিমিটেড’ ও ‘হোমস্ট্রিট বিল্ডার্স’ কর্তৃক সংরক্ষিত থাকবে। তবে সর্বক্ষেত্রেই লেখকের নাম সংযুক্ত থাকবে।

নির্বাচন প্রক্রিয়া

১. প্রাপ্ত লেখা একটি বিশেষজ্ঞ প্যানেল কর্তৃক যাচাই-বাছাই করে চূড়ান্ত বিজয়ী নির্বাচিত করা হবে।
২. নির্বাচিতদের পরবর্তী করণীয় ই-মেইলে বা ফোনে জানানো হবে।
৩. নির্বাচিতদের আগামী ২৭ মার্চ ঢাকায় বিশেষ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পুরস্কৃত করা হবে।
৪. এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আপডেট ফেসবুক পেজে প্রকাশ করা হবে।
৫. আয়োজক প্রতিষ্ঠান প্রতিযোগিতার যেকোনো পর্যায়ে, যেকোনো নিয়ম বাতিল, পরিবর্তন করতে পারবে।

পুরস্কার/সম্মাননা

১. মোট ৬৩ জন সেরা লেখককে সম্মানিক করা হবে।
২. এর মধ্যে সেরা তিনজনকে যথাক্রমে ‘তোফায়েল-তাইফা অ্যাওয়ার্ড’ গোল্ড মেডেল, ব্রোঞ্জ মেডেল ও সিলভার মেডেলে ভূষিত করা হবে।
৩. বাকি ৬০ জন থেকে ৩০ জনকে ভোক্তা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার এবং ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের বাজার মনিটরিং টিমের সঙ্গে অভিযান পরিদর্শনের সুযোগ দেয়া হবে।
৪. অপর ২০ সেরা আইডিয়া ভিডিও আকারে প্রকাশ করা হবে।
৫. ১০ সেরা আইডিয়া দাতাকে ভোক্তা অধিকার নিয়ে নির্মিত কোনো TVC/AV বা নাটকে অভিনয়ের সুযোগ দেয়া হবে।
৬. এছাড়া থাকবে মূল্যবান বই, ক্রেস্ট এবং আকর্ষণীয় নানা উপহার।

 

চিত্রদেশ//এস//

আরও

Leave a Reply

Back to top button