সাহিত্য

মেহেবুব হকের কবিতা ‘আমিই সত্য’

আমি স্থুলকায় এ শরীরে আটকে আছি
নশ্বর দুনিয়ায় বৈষয়িক সম্পদের মোহে
যে মোহ আমার আত্মায় লেপন করেছে কালিমা,
ধূলায় ধূসরিত যে আত্মা হারিয়ে ফেলেছে
স্বচ্ছতা , হারিয়ে ফেলেছে নিজ অস্তিত্বের দর্শন ,
কামনা বাসনায় রক্ত মজ্জায় এখন
জমা হয়ে আছে বিষধর সর্পের ফণা,
যা কোন দৈবক্ষণে তার বিকৃত কদর্য রূপ দেখাতে
কার্পণ্য করে না , এত বিভীষিকাময় ,
এত নীচ আমি কীভাবে হলাম ?
আমি তো চেয়েছিলাম ঈশ্বরের খোঁজ ,
স্বর্গলোকের জ্যোতি যার প্রখর তেজে
নিষ্কলুষ হবে আমার আত্মা ,
দেহ মনে বইবে প্রশান্তির চরম বাঁধভাঙা শিহরণ
যে শিহরণের ঢেউ জাগবে আমার সমগ্র অস্থি মজ্জায় ,
আমার সমস্ত অনু-পরমানুতে আন্দোলিত হতে থাকবে
আনন্দের সাগরে অসীম ফেনারাশি ,যার প্রতিটি তরঙ্গ
আছড়ে পড়বে মিলনের মহামন্ত্রে মুক্তির টানে
মিলিত হতে সুদুর অসীমের তরে
যার কোন স্থান নেই, কাল নেই, পাত্র নেই
আছে শুধুই সত্যের মহাদর্শন যা বর্ণনাতীত
যা শুধুই হৃদয় দিয়ে অনভব করা যায় ,
যে সৌন্দর্যের পিপাসু আত্মারা বিলীন হয়ে গেছে
সত্যের মহাসাগরে, যেমনিভাবে মুহাম্মদ মোস্তফা (স) এর
আকর্ষণে ফানা হয়েছেন তাঁর সাথীরা
নম্রুদের জ্বলন্ত অগ্নিকুণ্ডে ভালোবাসার অগ্নিপরীক্ষায়
জয়ী হয়েছেন ইবরাহীম (আ ) কিংবা ইউসুফ (আ ) এর রূপদর্শনে
মোহিত হয়ে আঙুল কর্তন করেছিলেন রমণীগণ
কী সেই সত্যদর্শন যার জন্য ঈশ্বর আদমের শরীরে
রুহ ফুঁকে চলেছেন অবিরাম ধারায়
যে ধারায় আবহমান কাল ধরে ধরনীর বুকে
কত সম্রাজ্যের উত্থান পতন
ত্যাগ তিতিক্ষা ও কর্মের ভারে মানব জাতির
গর্বভরে দর্প ও অহংকারের গগনচুম্বী আম্ফালন
যা নিমিষেই শেষ হয়ে যায় মহান রাজাধিরাজ ঈশ্বরের ক্ষণিকের ইচ্ছায়
কেন তবে আমি বস্তুর মোহে
সারাজীবন কালাতিপাত করবো, সইবো দুঃখ গঞ্জনা
আমি তাই মুক্ত হতে চাই, মহাসত্যের দর্শনে দীক্ষা নিয়ে
নিজেকে পরম ব্রহ্মের মাঝে চিনতে চাই
চিনতে চাই নিজেকে বাকি জীবনভর বাঁচতে চাই ঈশ্বরের মানুষ হয়ে
সমর্পণ করতে চাই নিজেকে সম্পূর্ণভাবে অতীন্দ্রিয় সত্তার নিকট
যতক্ষণ না অনুভব করি আমিই জগতে মহাসত্য

তাং-০৩/০৫/২০২০ ইং, ঢাকা ।

আরও

Leave a Reply

Back to top button