প্রধান সংবাদ

ইরানের বিরুদ্ধে ট্রাম্পের নতুন নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
ইরাকের মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের প্রতিশোধমূলক ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর তেহরানের বিরুদ্ধে নতুন ও আরো শক্তিশালী নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। স্থানীয় সময় বুধবার সকালে ওয়াশিংটনে মার্কিন জনতার উদ্দেশে দেয়া ভাষণে তিনি এ ঘোষণা দেন।

এ সময় ট্রাম্প বলেন, ‘ইরানের হামলায় কোনো মার্কিন সেনা হতাহত হয়নি এবং মার্কিন ঘাঁটিরও খুব সামান্যই ক্ষতি হয়েছে।’

যদিও এর আগে ইরানের সরকারি সংবাদ মাধ্যমগুলো দাবি করেছেলো, বুধবার ভোরে মার্কিন ঘাঁটিতে চালানো ওই হামলায় ৮০ জন মার্কিন সেনা নিহত এবং ২০০ সেনা আহত হয়েছে।

আর মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, যথাসময়ে সতর্ক সংকেত বেজে ওঠার কারণে মার্কিন ঘাঁটিগুলোর সেনারা নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যাওয়ায় তাদের কোনো ক্ষতি হয়নি।

ইরানের ওই হামলার জবাবে এখনও তেহরানের ওপর কোনো পাল্টা আঘাত করেনি মার্কিন সেনারা। আর বুধবারের ওই হামলার পর জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণেও তেমন কোনো হুঙ্কার দেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে দারুণ সব সামরিক অস্ত্র ও সরঞ্জামাদি রয়েছে। কিন্তু এই সত্যটির অর্থ এই নয় যে আমাদের এটি ব্যবহার করতে হবে। আমরা এটি ব্যবহার করতে চাই না। সামরিক ও অর্থনৈতিক উভয় ক্ষেত্রেই আমেরিকা সেরা।’

যদিও এর আগে তিনি হঁশিয়ারি দিয়ে বলেছিলেন, ইরান কোনো মার্কিন স্থাপনায় হামলা চালালে এর কঠোর জবাব দেয়া হবে। এমনকি তিনি ইরানের ৫২টি স্থাপনা চিহ্নিত করার কথা উল্লেখ করে বলেছিলেন, এটি কোনো হুঁশিয়ারি নয় হুমকি। অর্থাৎ ইরান হামলা চালানোর সঙ্গে সঙ্গে মার্কিন বাহিনী তেহরানের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়বে। কিন্তু বাস্তবে তার কিছুই করলেন না ট্রাম্প।

ইরানের এলিট বাহিনী আল কুদসের প্রধান জেনারেল কাসেম সোলেইমানির হত্যার প্রতিশোধ নিতে বুধবার সকালে ইরাকে অবস্থিত দুটি মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে ভয়াবহ ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় তেহরান।

ওই হামলায় ৮০ জন মার্কিন সেনা নিহত এবং আরো ২০০ জন আহত হয়েছে বলে দাবি করেছে তেহরান। তবে এই হামলায় ইরাকে অবস্থানরত ব্রিটিশ ও কানাডীয় সেনাদের কোনো ক্ষতি হয়নি বলে জানা গেছে।

ইরানের এক সামরিক সূত্রের বরাত দিয়ে ইরানি সংবাদ মাধ্যম পার্স টুডে আরো জানায়, ইরানের নিক্ষিপ্ত একটি ক্ষেপণাস্ত্রও মোকাবেলা করতে পারে নি মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা। প্রতিটি ক্ষেপণাস্ত্রই মার্কিন ঘাঁটিতে আঘাত হেনেছে। হামলায় মার্কিন ঘাঁটিতে অবস্থিত জঙ্গিবিমান, ড্রোন ও হেলিকপ্টারসহ সামরিক সরঞ্জামের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। মার্কিন ঘাঁটি দুটিতে সবমিলিয়ে ২২টি ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানে বলে দাবি করেছে তেহরান।

ইরাকের সামরিক সূত্রও দুটি মার্কিন ঘাঁটিতে মোট ২২টি ক্ষেপণাস্ত্র হামলার কথা জানিয়েছে।

 

চিত্রদেশ//এস//

আরও

Leave a Reply

Back to top button