প্রধান সংবাদ

আজও উত্তাল ভারত, পুলিশের গুলিতে নিহত ৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে উত্তাল ভারত। এমতাবস্থায় সরকারি নিষেধাজ্ঞা অগ্রাহ্য করে শুক্রবার ফের বিক্ষোভের আগুন জ্বলে ওঠে রাজ্যের একাধিক জায়গায়। ফিরোজাবাদে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন বিক্ষোভকারীরা।

এ সময় পুলিশের গুলিতে আরো ছয়জন নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে। উত্তর প্রদেশের লখনউয়ের পর কানপুরে উত্তাল জনতার উপরে গুলি ছোড়ে পুলিশ। এ সময় ছয়জন নিহত হয় বলে খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন।

এর আগে বৃহস্পতিবার পুলিশের গুলিতে দেশটির ব্যাঙ্গালুরুতে দুইজন এবং লক্ষ্ণৌতে একজন বিক্ষোভকারী নিহত হন।

জানা যায়, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে শুক্রবার সকালে বুলন্দশহর, গোরক্ষপুরসহ একাধিক জায়গায় পথে নামেন বিক্ষোভকারীরা। সেই সঙ্গে ব্যাপক ভাঙচুরও চলে। আগুন ধরিয়ে দেয়া হয় একাধিক গাড়িতে। পরিস্থিতি সামাল দিতে গেলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে বিক্ষোভকারীদের।

সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাস্তায় নেমে আসার পর পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি ইট-পাথর ছুড়তে শুরু করে উত্তেজিত জনতা। এ সময় তাদের লক্ষ্য করে পাল্টা ইট ছুড়ে মারে পুলিশ সদস্যরা। এছাড়া এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানে গ্যাসের সেলও ফাটায় পুলিশ। তাছাড়া ছোড়া হয় গুলি।

১৪৪ ধারা চালু থাকায় সকালের দিকে তেমন ঝামেলা না বাধলেও, বেলা বাড়তেই বিক্ষোভে তেতে ওঠে মেরঠ। থামাতে গেলে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাথর ছোড়া হয়।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবারও দফায় দফায় আন্দোলন হয়েছিলো উত্তরপ্রদেশে। তারপরেই রাজ্য জুড়ে ১৪৪ ধারা জারি হয়। সেই সময় বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশে কড়া বার্তা দেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করলে বিক্ষোভকারীদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে তা নিলামে তোলা হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

চিত্রদেশ //এস//

আরও

Leave a Reply

Back to top button