প্রধান সংবাদসারাদেশ

সেভেনআপ ভেবে কীটনাশক পান, ২ বোনের মর্মান্তিক মৃত্যু

পাবনা প্রতিনিধি:
সেভেনআপের বোতলে রাখা কীটনাশক পান করে রাহিমা খাতুন (৮) ও খাদিজা খাতুন (৪) নামে দুই বোনের মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নিজ বাড়িতে মারা যায় রাহিমা। আগের দিন বুধবার রাতে ঢাকার সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খাদিজার মৃত্যু হয়।

তারা ঈশ্বরদী পৌর এলাকার অরণকোলা গ্রামের অটোরিকশা চালক বাবু মন্ডলের মেয়ে।

মৃত দুই বোনের চাচা মানিক জানান, মায়ের সঙ্গে গত মঙ্গলবার তিন বোন খাদিজা, রাহিমা ও ঋতু খাতুন দাশুড়িয়ার আথাইলশিমুল গ্রামে নানা বাড়িতে বেড়াতে যায়। তাদের মামা রোকন উদ্দিন ক্ষেতের আগাছা পুড়িয়ে মারার জন্য ওইদিন তার ঘরের টেবিলে একটি সেভেনআপের বোতলে কীটনাশক রেখে বাইরে যান।

এ সময় সেভেনআপের বোতল ভেবে ওই কীটনাশক গ্লাসে ঢেলে পান করে তিন বোনসহ আরও কয়েকজন শিশু। বড়রা সামান্য পান করে উটকো গন্ধের কারণে বমি করে দিলেও ছোট্ট খাদিজা ওই কীটনাশকের বিষক্রিয়ায় অসুস্থ্য হয়ে পড়ে।

তিনি জানান, খাদিজাকে দ্রুত স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে নেয়া হয়। সেখান থেকে খাদিজাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকার সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই তার মৃত্যু হয়। পরদিন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নিজ বাড়িতে মারা যায় মেজ বোন রাহিমা খাতুন।

ঈশ্বরদী পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবুল হাসেম বলেন, আপন দুই বোনের মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

ঈশ্বরদী থানার ওসি বাহাউদ্দিন ফারুকী  জানান, এ ব্যাপারে একটি ইউডি মামলা করা হয়েছে।

চিত্রদেশ//এস//

আরও

Leave a Reply

Back to top button