সাহিত্য

মেহেবুব হকের কবিতা ‘আমিত্বের মৃত্যু’

সময়ের স্রোতে হারিয়ে যায় আত্ম পরিচয়ের স্বীকৃত বাঁধনগুলো
কুয়াশার আবরণে ঢাকা পড়ে যায় বিবেক প্রদীপ
যেমনিভাবে তিলোত্তমা নগরী ঢেকে যায় অন্ধকারের গহীনে
বার্ধক্যের মরিচায় শীতল হয়ে যায় জীবনের উষ্ণ আবেদন
অস্তিত্বে থেকেও অনস্তিত্বকে পাওয়ার পরম আকাঙ্ক্ষা
এ কেমন ঐশ্বরিক আবেদন হৃদয়ের মাঝে !
প্রজ্ঞার পবিত্র দালানে বসে প্রহর গুনি মিলনের
কেতাবের জ্ঞান দিন দিন বড়ই বোঝা মনে হয়
দিল-কাবায় আমি স্পষ্ট অনুভব করি অতীন্দ্রিয় গুঢ় রহস্য
জাগতিক ধন সম্পদ বিষয় রাজি সবই বিষবাস্প মনে হয়
শয়তানের পুনঃপুনঃ আস্ফালনে রুদ্ধ হয়ে যায় বিবেকের দ্বার
জাগতিক অশান্তির অস্থির বাতায়ন আমাকে অক্টোপাসের মত
গিলে ফেলতে চায়, নিঃশেষ করতে চায় আমার প্রাণবায়ুকে
তবুও রহমান রহীম মাবুদের ওপর বড়ই ভরশা আমার
আমি সাধনার দ্বার খুলে সবর ও ধৈর্যের পোশাক পরে
প্রতিদিন একটু একটু করে এগিয়ে যায় দয়াময়ের নিকট
কোন এক রাতে স্বপ্নে দেখি নূরের ঝলকানিতে আলোকিত এক ভুবন
চারিদিকে ঐশ্বরিক পদচারনায় মুখরিত মালাইকার দল
ঈশ্বরের সবটুকু দয়া, মায়া,ও করুণায় অভিষিক্ত আমি
আমার চোখে মুখে বইছে অনির্বচনীয় অনুপম আভা
আমিত্বের বন্দিদশা থেকে মুক্ত হয়ে বহুত্বের মাঝে বিলীন হয়ে গেলাম
সেদিনই প্রথম আমি নিজেকে চিনলাম, জানলাম, চিরধন্য হলাম।
তাং-২০/০৫/২০২০ ইং, ঢাকা ।

কবি: মেহেবুব হক

আরও

Leave a Reply

Back to top button