প্রধান সংবাদ

মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে বুধবার শপথ নেবেন মমতা

স্টাফ রিপোর্টার:
পশ্চিমবঙ্গের বিধান সভা নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয় পেয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস। নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর মমতাসহ নতুন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা কবে শপথ নেবেন এমন প্রশ্ন উঠছিল।

সোমবার বিকেলে তৃণমূল ভবন থেকে সাংবাদিক বৈঠক করে সেই দিনক্ষণ জানিয়েছেন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি জানান, আগামী ৫ মে নতুন সরকারের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শপথ নিবেন।

আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে, বুধবার মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃতীয় বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেবেন তিনি।

বুধবার কালীঘাটে সাংবাদিক সম্মেলনের পরে তৃণমূল কার্যালয়ে পরিষদীয় দলের সঙ্গে বৈঠক করেন মমতা। বৈঠকের পরে সাংবাদিকদের সামনে বৈঠকের সিদ্ধান্ত জানান দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি জানান, পরিষদীয় দলের নেতা হচ্ছেন মমতা।

পার্থ আরো জানান, বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে, ৫ তারিখ শপথ নেবেন মমতা। তার পরে ৬ ও ৭ মে শপথ নেবেন বাকি বিধায়করা। সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বিধানসভার স্পিকার হবেন বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। স্পিকার নির্বাচনের দিন দায়িত্ব পালন করবেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়। কারা মন্ত্রী হবেন সেই বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। মমতা ঠিক করবেন কারা মন্ত্রী হবেন।

সূত্র জানিয়েছে, মমতা করোনার কারণে এবার আর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান বৃহৎ পরিসরে করতে চাইছেন না। শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান করতে চাইছেন রাজভবনেই। ২০১১ সালে মমতা যখন প্রথম ক্ষমতায় আসেন, তখন প্রথম মন্ত্রীসভার শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান হয়েছিল এই রাজভবনে। ২০১৬ সালে মমতা দ্বিতীয়বারের জন্য নির্বাচনে জিতলে সেবার মন্ত্রীসভার শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান হয়েছিল কলকাতার প্রাণকেন্দ্র ধর্মতলার রেড রোডে।

গতকাল পশ্চিমবঙ্গের ২৯২ আসনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। পশ্চিমবঙ্গে টানা তৃতীয়বারের মতো ক্ষমতায় বসছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল তৃণমূল কংগ্রেস। নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস পেয়েছে ২১৩ আসন। বিজেপি ৭৭ আসন। বাম ১ আসন। রাজ্যে সরকার গঠনে দরকার ছিল ১৪৮।

এদিকে, জয়ী হওয়ার পর সরকার গঠনে দেরি করতে চাইছেন না পশ্চিমবঙ্গের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, নতুন মন্ত্রীসভায় পুরোনো মন্ত্রী বাদ পড়তে পারেন। স্থান হতে পারে বয়সে নবীনদের। তৃণমূলের অভ্যন্তরের খবর, মমতা চাইছেন কিছু তরুণ বিধায়ককে এই মন্ত্রিসভায় ঠাঁই দিতে; যাতে রাজ্য সরকারের কাজের গতি বাড়ে।

গতকাল রোববার ফল ঘোষণার পরই মমতা বলেছেন, তার নতুন সরকারের প্রথম কাজ হবে বাংলা থেকে করোনাকে পরাস্ত করা।

চিত্রদেশ//এলএইচ//

Tags

আরও

Leave a Reply

Back to top button