কর্পোরেট সংবাদপ্রধান সংবাদ

ভারতে বাংলাদেশ বিমানসহ চার এয়ারলাইনসের ফ্লাইট বন্ধ

স্টাফ রিপোর্টার:
করোনাভাইরাসের মহামারি আকার ধারণ করার কারণে ১৩ মার্চ থেকে আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত অন্য দেশের মতো বাংলাদেশিদের ভারতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দেশটির সরকার। এ কারণে বাংলাদেশ থেকে কলকাতা-দিল্লি রুটের সব ফ্লাইট বন্ধ করেছে রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস।

অপরদিকে একই ধরনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশের তিনটি বেসরকারি বিমান সংস্থা ইউএস বাংলা, নভোএয়ার ও রিজেন্ট এয়ার।

বিমানের উপ-মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) তাহেরা খন্দকার বলেন, বাংলাদেশ থেকে কলকাতায় প্রতিদিন বিমানের দুটি করে ফ্লাইট রয়েছে। আর দিল্লিতে প্রতিদিন একটি করে ফ্লাইট ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে গত কয়েক দিন ধরে ঢাকা-দিল্লি রুটে প্রতি সপ্তাহে তিনটি করে ফ্লাইট চলছিল। ভারত সরকারের নিষেধাজ্ঞার কারণে ১৩ মার্চ থেকে বিমানের সব ফ্লাইট বন্ধ করা হয়েছে। ওইদিন সন্ধ্যার পর বিমানের কোনো ফ্লাইট ভারতে যাবে না।

ইউএস বাংলা এয়ারলাইনসের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) কামরুল ইসলাম বলেন, শুক্রবার থেকে ভারতীয় ছাড়া অন্য কোনো দেশের যাত্রীদের কলকাতা ও চেন্নাইয়ে নেয়া হবে না। ১৫ মার্চ পর্যন্ত ঢাকা-চেন্নাই রুটে এবং ১৬ মার্চ পর্যন্ত ঢাকা-কলকাতা রুটে কেবল ফিরতি যাত্রীদের আনতে ফ্লাইট চালু থাকবে। এরপর থেকে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত রাষ্ট্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ইউএস বাংলার ভারতের ফ্লাইট বন্ধ থাকবে।

নভোএয়ারের সিনিয়র ম্যানেজার (মার্কেটিং অ্যান্ড সেলস) এ কে এম মাহফুজুল আলম বলেন, শুক্রবার থেকে আমাদের ফ্লাইট বন্ধ থাকবে। তবে ওইদিন সন্ধ্যায় আমাদের একটি ফ্লাইট যাত্রী ছাড়াই কলকাতায় যাবে সেখান থেকে ফিরতি যাত্রীদের আনার জন্য। ১৪ মার্চ থেকে ঢাকা-কলকাতা ফ্লাইট পুরোপুরি বন্ধ করা হবে।

রিজেন্ট এয়ারের সিইও ইমরান আসিফ যুগান্তরকে বলেন, রাষ্ট্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শুক্রবার থেকেই বাংলাদেশ থেকে ভারতে আমাদের সব ফ্লাইট বন্ধ থাকবে। তবে যেসব বাংলাদেশিরা ভারতে আছেন তাদেরকে দেশে ফিরিয়ে আনা এবং বাংলাদেশে যেসব ভারতীয়রা আছেন তাদেরকে ফেরত পাঠানোর জন্য আরও দুই-একদিন ফ্লাইট চালু রাখার জন্য ভারত সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছি। যদি অনুমতি পাওয়া যায় তাহলে দুই-একদিন ফ্লাইট চালানো হবে।

চিত্রদেশ//এস//

 

আরও

Leave a Reply

Back to top button