প্রধান সংবাদ

বাজেট অধিবেশন বসছে আজ

স্টাফ রিপোর্টার:
করোনার ভয়াবহ থাবার মধ্যেই শুরু হচ্ছে একাদশ জাতীয় সংসদের অষ্টম বাজেট অধিবেশন। এটি আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের টানা তৃতীয়বারের দ্বিতীয় বাজেট অধিবেশন। আজ বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে এই বাজেট অধিবেশন। ইতিহাসের সবচেয়ে ছোট পরিসরের এই বাজেট অধিবেশন শেষ হবে মাত্র ১২ কার্যদিবসে।

এরইমধ্যে অধিবেশনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে সংসদ সচিবালয়। রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিরাপত্তায় নেয়া হয়েছে দ্বিগুন নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সংসদে কর্মরতদের কোভিড-১৯ পরীক্ষা করে এবার দায়িত্ব বন্টন করা হচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বিভিন্ন বাহিনীর করোনামুক্ত সদস্যদেরই এখানে দায়িত্ব দেয়া হচ্ছে। তবে এতোকিছুর পরও করোনা নিয়ে দুশ্চিন্তামুক্ত হতে পারছেন না সংসদ সংশ্লিষ্টরা। কখন কার কি হয়ে যায় এই দুশ্চিন্তায় অধিবেশনে অংশগ্রহণকারী এমপি, মন্ত্রী এবং সংসদে বিভিন্ন দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা-কর্মচারিরা ভীত বিহব্বল হয়ে আছেন।

এতো শঙ্কিত হওয়ার কারণ একটাই। সংসদ ভরে গেছে উপসর্গহীন করোনা রোগীতে। অধিবেশনকে সামনে রেখে দায়িত্ব পালনের জন্য বাছাই করা সাড়ে ৪শ’ কর্মকর্তা-কর্মচারীর কোভিড-১৯ পরীক্ষা করে ৪৩ জনেরই রেজালট পজিটিভ এসেছে। এছাড়া সংসদে দায়িত্ব পালণরত বিপুল সংখ্যক আনসার ও পুলিশ সদস্যেরও করোনা পজিটিভ হওয়ার খবরে দেখা দিয়েছে আতঙ্ক। এছাড়া এরইমধ্যে সাতজন এমপিও করোনা আক্রান্ত হয়ে পড়েছেন। সবমিলিয়ে এবারের সংসদ অধিবেশন ঘিরে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার শেষ নেই।

তবে করোনার ঝুঁকি এড়াতে ইতোমধ্যে বিশেষ নিরাপত্তা ও অনেকগুলো কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে সংসদ সচিবালয়। ভিআইপিদের সংস্পর্শে যারা আসবেন তাদের এরইমধ্যে করোনা পরীক্ষা সম্পন্ন করে আইসোলেশন নিশ্চিত করা হয়েছে। একইভাবে করোনামুক্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদেরও সংসদ অভ্যন্তরে দায়িত্ব দেয়া হচ্ছে নতুন করে। গনমাধ্যম প্রতিনিধিদের মুল ভবনে প্রবেশাধিকার সংরক্ষিত করে সংসদের বাইরে থাকা মিডিয়া সেন্টার থেকে বাজেট ডকুমেন্টস বিতরণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। বহিরাগত তো দূরে থাক, এমপি-মন্ত্রীদের স্টাফদেরও এবার সংসদ অভ্যন্তরে প্রবেশাধিকার রাখা হচ্ছেনা। এছাড়া বাজেট অধিবেশনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংস্পর্শে আসতে পারেন এমন কর্মকর্তা-কর্মচারী ছাড়াও অধিবেশন কক্ষে দায়িত্ব পালন করবেন এমন কর্মকর্তা, ক্যামেরাপারসন, সংসদের কমিশন ও কার্য-উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে অংশ নেবেন এমন ব্যক্তি এবং তাদের সংস্পর্শে থাকবেন এমন স্ব স্ব শাখা-অধিশাখার সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর তালিকা করে কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হয়েছে।

সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, এবারের বাজেট অধিবেশন ১২ কার্যদিবস চলতে পারে। এবিষয়ে এরইমধ্যে একটি ক্যালেন্ডার প্রকাশ করেছে সংসদের আইন শাখা-১। ক্যালেন্ডার অনুযায়ী এই অধিবেশন ১০ জুন সংসদের অধিবেশন শুরু হয়ে ৮ অথবা ৯ জুলাই পর্যন্ত চলতে পারে। অধিবেশন শুরু ও বাজেট পেসের দিন ছাড়া প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টায় সংসদের বৈঠক বসবে। চলবে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত।

আজ বুধাবার বিকেল ৫টায় বাজেট অধিবেশন শুরু হবে। এরপর অধ্যাদেশ উত্থাপন হবে। তারপর রাজধানীর ডেমরা-দনিয়া-মাতুয়াইল আসনের এমপি ও আওয়ামী লীগ নেতা হাবিবুর রহমান মোল্লার মৃত্যুতে আনা হবে শোকপ্রস্তাব। শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনা এবং তা গ্রহণের পর সংসদের বৈঠক মুলতবি করা হবে। পরের দিন ১১ জুন বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় অধিবেশন শুরু হবে। এরপর উত্থাপন হবে বাজেট ও অর্থ বিল। ১২ ও ১৩ জুন (শুক্র ও শনিবার) সংসদের বৈঠক মুলতবি রাখা হবে। ১৪ জুন (রোববার) সম্পূরক বাজেটের ওপর আলোচনা হবে। এদিন থেকে প্রতিটি কার্যদিবস সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত চলবে। ১৫ জুন (সোমবার) সম্পূরক বাজেটের ওপর আলোচনা, নির্দিষ্টকরণ সম্পূরক বিল পাস হবে। ১৬ জুন (মঙ্গলবার) ও ১৭ জুন (বুধবার) মূল বাজেটের ওপর আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে। ১৮ জুন (বৃহস্পতিবার) থেকে ২১ জুন (রোববার) অধিবেশন মুলতবি থাকবে। ২২ জুন (সোমবার), ২৩ জুন (মঙ্গলবার) ও ২৪ জুন (বুধবার) বাজেটের ওপর আলোচনা হবে। ২৫ জুন (বৃহস্পতিবার) থেকে ২৮ জুন (রোববার) অধিবেশন মুলতবি থাকবে। ২৯ জুন (সোমবার) বাজেটের ওপর সমাপনী আলোচনা এবং অর্থবিল পাস হবে। ৩০ জুন (মঙ্গলবার) মূল বাজেট ও নির্দিষ্টকরণ বিল পাস হবে। ৮ জুলাই (বুধবার) অথবা ৯ জুলাই (বৃহস্পতিবার) সমাপ্তি টানা হবে এই অধিবেশনের।

চিত্রদেশ//এস//

আরও

Leave a Reply

Back to top button