প্রধান সংবাদ

ঝড়-বৃষ্টির কবলে রাজধানী, ভোগান্তিতে সাধারণ মানুষ

স্টাফ রিপাের্টার:
ঘূর্ণিঝড় আম্পানের পর তীব্র গরমে কাঙ্ক্ষিত বৃষ্টির দেখা পাচ্ছিল না রাজধানীবাসী। মঙ্গলবার মধ্যরাতে প্রচণ্ড ঝড়ের সঙ্গে মুষলধারে বৃষ্টিতে আক্ষেপ ঘুচালো প্রকৃতি। বৃষ্টির সঙ্গে বিজলিও চমকাচ্ছিল।

বুধবার (২৭ মে) ভোরে রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায় কালবৈশাখী ঝড় তীব্র গতিতে ঝড় আঘাত হানে। এতে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে গাছ ভেঙে পড়েছে। সকাল সাড় ৯টার দিকে সৃষ্টি থামে। অনেক এলাকায় হাঁটু ও কোমর সমান পানি জমেছে। অফিসগামী মানুষরা পড়েছে চরম ভোগান্তিতে।

রাতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রচণ্ড গতিতে বাতাস প্রবাহিত হওয়ার সঙ্গে রাত সোয়া ২টার পর থেকে মুষলধারে বৃষ্টি হয়।

দেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে বলে আগেই পূর্বাভাস দিয়েছিল আবহাওয়া অধিদফতর। ঈদের দিন অর্থাৎ ২৫ মে থেকে তিন দিন চার সমুদ্র বন্দরে দেখাতে বলা হচ্ছে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত।

একইসঙ্গে উপকূলীয় এলাকা স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে দুই থেকে চার ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে বলেও আশঙ্কা করছে আবহাওয়া অধিদফতর।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায়; ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। একই সাথে ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্র জানিয়েছে, কালবৈশাখী ঝড়ের প্রভাবে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার আশঙ্কা আছে।

 

চিত্রদেশ//এস//

আরও

Leave a Reply

Back to top button